Food Adulteration Paragraph for HSC Students

Here is the Food Adulteration Paragraph for HSC students. Related questions about food adulteration paragraph:

  1. What Is Food Adulteration?
  2. What is the main reason for food adulteration?
  3. What are the harms of consuming adulterated food?
  4. How to prevent food adulteration?

Food Adulteration Paragraph with Bangla Translation

People need food to survive in this world. Without food, our body won’t work properly. We need a lot of energy for our daily work, which we collect from food. So it is very important to consume good foods which are rich in vitamins and minerals. But nowadays food adulteration seems to be a daily occurrence. A variety of toxic ingredients are being used in vegetables, fruits, fish, dairy products, edible oils, and baby foods. As a result of eating these adulterated foods, various diseases are appearing in our bodies. Many times children are getting seriously ill by eating these adulterated foods. There are several reasons for food adulteration. Food and beverage companies are using toxic chemicals. Some unscrupulous and greedy businessmen do this in the hope of making extra profit. They value profit more than human life. Many studies have shown that most foods are contaminated with dangerous contaminants. Harmful ingredients like Formalin, DDT, Chlordane, Aldrin, etc. are mixed in the adulterated food. All adulterated foods are extremely risky for our health and life which pushes us to the brink of death. Taking adulterated foods we often fall victim to many serious diseases like cancer, kidney failure, liver damage, heart diseases, headache, high blood pressures, etc. So it is very important to avoid adulterated food. The government will have to take more stringent measures to stop food adulteration. The government must ensure exemplary punishment for those involved in the adulteration of food. Moreover, there should be a precautionary campaign in the media to increase public awareness among people of all walks of life.

Bangla Translation

মানুষকে এই পৃথিবীতে বেঁচে থাকতে হলে খাবার গ্রহণ করা প্রয়োজন। খাবার ছাড়া আমাদের শরীর ঠিক মতো কাজ করবে না। আমাদের প্রতিদিনের কাজের জন্য অনেক শক্তির প্রয়োজন, যা আমরা খাবার থেকে সংগ্রহ করে থাকি। তাই ভিটামিন এবং খনিজ সমৃদ্ধ ভাল খাবার গ্রহণ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্তু বর্তমানে খাবারে ভেজাল মেশানো যেন একটি নিত্য নৈমিত্তিক ঘটনা হয়ে দাঁড়িয়েছে। শাকসবজি, ফলমূল, মাছ, দুধজাত পণ্য, ভোজ্যতেল, এবং শিশুর খাবারগুলিতে ব্যবহার করা হচ্ছে বিভিন্ন রকম বিষাক্ত উপাদান। এইসব ভেজাল খাবার খাওয়ার ফলে আমাদের শরীরে দেখা দিচ্ছে নানা রকম রোগ-বালাই। অনেক সময় শিশুরা এসব ভেজাল খাবার খেয়ে মারাত্মক অসুস্থ হয়ে পড়ছে। খাদ্যে ভেজাল মেশানোর অনেক কারণ খুজে পাওয়া যায়। খাদ্য ও পানীয় উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানগুলো বিষাক্ত রাসায়নিক দ্রব্য ব্যবহার করছে। কিছু অসাধু ও লোভী ব্যবসায়ী অতিরিক্ত লাভের আশায় এ ধরনের কাজ করে থাকে। তাদের লাভের সামনে মানুষের জীবনের কোন দাম নেই। অনেক সমীক্ষায় দেখা গেছে যে বেশিরভাগ খাবারেই বিপজ্জনক ভেজাল মেশানো হচ্ছে। ভেজাল খাবারে Formalin, DDT, Chlordane, Aldrin ইত্যাদি ক্ষতিকারক উপাদান মেশানো হয়। সমস্ত ভেজাল খাবার আমাদের স্বাস্থ্য এবং জীবনের জন্য অত্যন্ত ঝুঁকিপূর্ণ যা আমাদেরকে তিলে তিলে মৃত্যুর দিকে ঠেলে দেয়। ভেজাল খাবার খাওয়ার ফলে আমরা বিভিন্ন রকম আমরা মারাত্মক রোগ যেমন কেন্সার, লিভার ড্যামেজ, কিডনি ফেইলুর, উচ্চ রক্ত চাপ,ডায়াবেটিস, হৃদরোগ ইত্যাদি রোগে আক্রান্ত হই। সুতরাং ভেজাল খাবার থেকে বেঁচে থাকা অত্যন্ত জরুরি। খাদ্যে ভেজাল বন্ধের জন্য সরকারকে আরও কঠোর ব্যবস্থা নিতে হবে। খাদ্যে ভেজাল মেশানোর সাথে যারা জড়িত থাকবে তাদের যাতে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি হয় তা নিশ্চিত করতে হবে। তাছাড়া গণমাধ্যমগুলোতে সতর্কতামূলক প্রচারণা চালাতে হবে, যাতে করে সর্বস্তরের মানুষের মধ্যে গ্ণসচেতনতা বৃদ্ধি পায়।

Leave a Comment

error: Content is protected !!
Ads Blocker Image Powered by Code Help Pro
Ads Blocker Detected!!!

We have detected that you are using extensions to block ads. Please disable your ads blocker and refresh the page.

 

আপনার ব্রাউজারে একটি এডব্লকার পাওয়া গিয়েছে। আমাদের ওয়েবসাইটে প্রবেশের জন্য দয়া করে আপনার এড ব্লকারটি বন্ধ করে পেইজটি রিফ্রেশ করুন। ধন্যবাদ!

Refresh